About The Institute

Have a virtual Look on Mangrove Institute

Our Strength, Our Lab and Workshop

ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজি এর প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে মানসম্মত সুশিক্ষা বিস্তারে কাজ করে আসছে। এই ইনষ্টিটিউটে একজন শিক্ষার্থীকে থিওরী ও ব্যাবহারিক শিক্ষার পাশাপাশি তার ক্যারিয়ার ও ভবিষ্যত গড়ে তোলার জন্য যত্নসহকারে পরিচর্যা ও পর্যাবেক্ষন করা হয়। কেবল মাত্র সনদ দেয়া নয় বরং শিক্ষার্থীকে একজন সুন্দর মানুষ গড়ার কারিগরি হিসেবে কাজ করছে ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট।

ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজি এর প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে মানসম্মত সুশিক্ষা বিস্তারে কাজ করে আসছে। এই ইনষ্টিটিউটে একজন শিক্ষার্থীকে থিওরী ও ব্যাবহারিক শিক্ষার পাশাপাশি তার ক্যারিয়ার ও ভবিষ্যত গড়ে তোলার জন্য যত্নসহকারে পরিচর্যা ও পর্যাবেক্ষন করা হয়। কেবল মাত্র সনদ দেয়া নয় বরং শিক্ষার্থীকে একজন সুন্দর মানুষ গড়ার কারিগরি হিসেবে কাজ করছে ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট।

ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট দক্ষিণবঙ্গের সেরা ও দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি বেসরকারি পলিটেকনিক ইনষ্টিটিউট। বর্তমানে ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ১৫ টি ৪ বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোগ্রাম  ও  অন্যান্য কোর্সে মোট ৩৩০০ শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত এবং ২০০৯ সালে থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত প্রায় ২৫০০ শিক্ষার্থী কোর্স সম্পন্ন করেছে। ২০০৫ সালে প্রতিষ্ঠিত এই ইনষ্টিটিউট শুরু থেকে মানসম্মত ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা নিশ্চিত করার জন্য শিক্ষার্থীদের জন্য প্রয়োজনীয় সকল সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট ২০০৯ সাল থেকে নিজস্ব ক্যাম্পাসে স্থানান্তরিত হয়ে কাযর্ক্রম পরিচালনা করে আসছে। এছাড়া ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটের একই ব্যবস্থাপনায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত ইমপেরিয়াল কলেজ অব ইঞ্জিনিয়ারিং এ ৫ টি বিষয়ে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোগ্রাম চালু রয়েছে। ম্যানগ্রোভ ইনষ্টি্টিউট বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত একটি RTO ( Registered Training Organization) যা জাতীয় কারিগরি দক্ষতামান অনুসারে ১১টি বিষয়ে CBT&A বা কম্পিটেন্সি বেজড আন্তর্জাতিক মানের প্রশিক্ষন প্রদান করে থাকে।

প্রতিষ্ঠানটি এর প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই নিয়মশৃঙ্খলা, উন্নত শিক্ষা পরিবেশ, অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলী, আধুনিক ল্যাব উপকরন সংযুক্ত করে আসছে ফলে এখনকার শিক্ষার্থীরা প্রতি বছর দেশের বেসরকারি পলিটেকনিক ইনষ্টিটিউট সমূহের মধ্যে অন্যতম ভাল ফলাফল করতে সক্ষম হয়েছে এবং দক্ষিনাঞ্চলের সকল বেসরকারি পলিটেকনিকের মধ্যে প্রতিবছর সেরা ফলাফল করে আসছে এছাড়া ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা ডুয়েট, বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে চান্স পেয়ে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে অধ্যয়নরত আছে। ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট থেকে পাশকরা শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান ও নামকরা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকুরীরত আছে, এখানকার শিক্ষার্থীদের চাকুরী পাবার হার ৯০%।

ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিউটের রয়েছে আধুনিক স্থাপত্যশৈলিতে নির্মিত ২টি ভবন নিয়ে নিজস্ব ক্যাম্পাস ও ৭টি হোষ্টেল। শিক্ষার্থীদের ব্যাবহারিক শিক্ষা নিশ্চিত করতে এখানে রয়েছে বিভিন্ন বিভাগের জন্য ৩৩টি শিতাতপ নিয়ন্ত্রিত ল্যাব ও ওয়ার্কশপ।

অত্যাধুনিক ল্যাব ও ওয়ার্কশপের পাশাপাশি ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটে রয়েছে ১৮০০০ টেক্সট বই ও ২০০০ রেফারেন্স বই সমৃদ্ধ সুসজ্জিত লাইব্রেরী ও সবার জন্য বিনামূল্যে বইয়ের ব্যাবস্থা। বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য ক্যাম্পাসে রয়েছে অডিটেরিয়াম। সর্বক্ষনিক নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবারহ করতে প্রতিষ্ঠানে রয়েছে ষ্টান্ডবাই জেনারেটর। শিক্ষার্থীদের জন্য ক্যাম্পাসে বিনামূল্যে ১০০ এমবিপিএস ব্যান্ডইউডথ সম্পন্ন ফ্রি ওয়াইফাই কভারেজের মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যাবহারের সুবিধা, সকল নোটিশ এসএমএস নোটিফিকেশন, ও কম্পিউটারাইজড ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম।

শিক্ষার্থীদের উপস্থীতি ব্যাবস্থাপনার জন্য রয়েছে এন্ড্রয়েড এ্যাপ্লিকেশন ও ক্যাম্পাসের নিরাপত্তার জন্য ১০০টি সিসি ক্যামেরা। বর্তমানে ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটে রয়েছে ৪৮ জন পূর্নকালীন দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলী। এখানে প্রতি সেমিষ্টারে ইন্ডাষ্ট্রিয়াল ট্যুরের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বাস্তব কর্মক্ষেত্র সম্পর্কে ধারনা দেয়া হয়। পড়াশোনার পাশাপাশি মানসিক বিকাশের জন্য ম্যনাগ্রোভ ইনষ্টিটিউটে রয়েছে বার্ষিক ক্রিড়াঅনুষ্ঠান, জাতীয় দিবস উদযাপন ও সহশিক্ষা কার্যক্রমের জন্য রয়েছে বিভিন্ন ক্লাব এছাড়া ইংরেজী ভাষায় দক্ষ করার জন্য রয়েছে ইংরেজী ল্যাঙ্গুয়েজ ক্লাব। ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন জাতীয় প্রতিযোগীতামূলক কর্মকান্ডে অংশগ্রহন করে নিজেদের মেধার পরিচয় দিয়েছে। শুধুমাত্র একটি সার্টিফিকেট নয়, নিয়মানুবর্তীতা ও পরিশ্রমের মাধ্যমে ব্যাক্তিগত গুনাবলির বিকাশের মাধ্যমে একজন শিক্ষার্থীকে তার সুন্দর ভবিষ্যতের পথপ্রদর্শন করাই ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটের উদ্দেশ্য।

Mangrove Institute started functioning from 26th June 2005 under “Bangladesh Technical Education Board (BTEB Code: 35066), It is one of the government-approved private polytechnic institute having an objective of achieving excellence in technical education of Bangladesh. The institute is now one of the most reputed private polytechnic institutes in Bangladesh.

Mangrove Institute of Science and Technology has been established at the industrial area khalishpur of khulna division, known for the world-famous mangrove forest with a view to expecting to help the students of this land to fulfill their dream to be a successful engineer. From the name of the world’s largest mangrove forest in the south Bengal area, it named ‘Mangrove Institute of Science and Technology’. Mangrove Institute of Science and Technology (MIST) Campus is situated at Baikali, 2 km north from the Khulna main city, and by the side of the Khulna Jessore highway also at front of Khulna divisional stadium. Its own campus now stands in a large area.

Mangrove Institute is the first private polytechnic which shifted its own permanent campus. The campus has one 10 storied and one 5 storied building with 55000 SQFT construction areas with a nice architectural view and has all modern facilities. The communication system with the Mangrove Institute of Science and Technology (MIST) campus is better than any other. At present, there are 250 teachers and staff, 1800 students under the Diploma Engineering program, and 300 students under various short courses.

Mangrove Institute of Science and Technology (MIST) offers 4 years Diploma in Engineering and several types of training course in ICT. Mangrove Institute of Science and Technology (MIST) trying to always stay ahead with modern technologies. Under the direction of a good engineering team and strong management of Managing Director, it is one of the most well-reputed private institutes in Bangladesh.